পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম – পাসপোর্ট সাইজ ছবি

আপনি যদি পাসপোর্টে ছবি দেয়ার জন্য পাসপোর্ট ছবি তৈরি করেন সেক্ষেত্রে আপনাকে পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিয়ে একটি সঠিক এবং একই সাথে মানানসই একটি ছবি তুলে দিতে হবে।

কারণ আপনি হয়তো এই সম্পর্কে জানেন যে আপনি পাসপোর্টে যে ছবিটি দিবেন সেটি পরবর্তীতে আর পরিবর্তিত করতে পারবেন না। অর্থাৎ বর্তমান সময়ে আপনি যে ছবি দিবেন, সেটি আজীবন আপনার পাসপোর্টে বিদ্যমান থাকবে, যতক্ষণ না নতুন আপডেট অনুযায়ী এটি পরিবর্তন করা যায়।

সেক্ষেত্রে আপনাকে একটি পারফেক্ট ছবি তুলতে হবে। যে ছবির যার মাধ্যমে আপনি এই সম্পর্কে নিশ্চিত অবস্থানে থাকতে পারবেন যে আপনার পাসপোর্ট এর ছবি যদি পরিবর্তন করা নাও যায়, তাহলেও ভবিষ্যতে কোন সমস্যা হবে না।

পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম

আপনি যদি পাসপোর্ট সাইজ ছবি তুলতে চান, অথবা পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম জেনে নিতে চান, তাহলে পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম হিসেবে যে সমস্ত বিষয় আপনার মাথায় রাখতে হবে সেগুলো নিচে তুলে ধরা হলো:

  • ছবি তোলার প্রস্তুতি গ্রহণ।
  • মানানসই পোশাক নির্বাচন ও পরিচ্ছন্নতা।
  • ছবি তোলার জন্য জায়গা নির্বাচন।
  • লাইটিং সেটাপ করা।
  • বসা এবং ফটোগ্রাফার নির্বাচন করা।
  • এবং পরিশেষে ছবি তোলা।

আপনি যদি একটি ভালো পাসপোর্ট ছবি তুলতে চান, তাহলে পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম হিসেবে আপনাকে প্রথমত উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলোর দিকে নজর দিতে হবে এবং এই সমস্ত বিষয়গুলো ভালোভাবে অনুসরণ করে, ছবি তোলার কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

তাহলে আর দেরি না করে এখনই উপরে উল্লেখিত পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা যাক।

ছবি তোলার প্রস্তুতি গ্রহণ: সর্বপ্রথম আপনাকে যে বিষয়টির দিকে মনোনিবেশ করতে হবে সেটি হল আপনি যে ছবি তুলতে চান, সেই সম্পর্কে নিজেকে প্রস্তুত রাখতে হবে। অর্থাৎ সর্বপ্রথম ধাপ হিসেবে ছবি তোলার প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে।

মানানসই পোশাক নির্বাচন: আর্টিকেলের শুরুতেই বলা হয়েছে আপনি পাসপোর্ট এর জন্য যে ছবি নির্বাচন করবেন সেই ছবি আজীবন আপনার পাসপোর্টে থাকবে। যতক্ষণ না নতুন আপডেট করে সেই পদ্ধতিটি পরিবর্তন করা হয়।

সেজন্য পাসপোর্ট এর ছবি যাতে পূর্বের তুলনায় আরো বেশি সুন্দর দেখায় সে ক্ষেত্রে আপনাকে আপনার জন্য মানানসই যে সমস্ত পোশাক রয়েছে সেগুলো নির্বাচন করতে হবে। সামর্থ্য থাকলে নতুন পোশাক ক্রয় করে তারপরে ছবি তুলতে হবে।

আর যদি সামর্থ্য না থাকে তাহলে পুরাতন যে পোশাক রয়েছে সেটি ভালোভাবে ধৌত করে ছবি তোলার দিকে মনোনিবেশ করতে হবে।

ছবি তোলার জায়গা নির্বাচন: ছবি তোলার জায়গা নির্বাচন করা একটি অন্যতম ধাপ৷ তাই ছবি তোলার পূর্বে অবশ্যই ছবি তোলার জন্য যে উপযুক্ত জায়গা রয়েছে, সেটি নির্বাচন করে নিতে ভুলবেন ন।

যদিও ছবি তোলার পরে আপনি আপনার নির্দিষ্ট জায়গা কিংবা ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে দিবেন, তারপরও একটি ভালো জায়গা নির্বাচন করা উচিত।

লাইটিং সেটাপ করা: মোবাইল ফোনের ক্যামেরা কোয়ালিটি তেমন একটা ভালো নয়, সে সমস্ত ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলার ক্ষেত্রে আপনাকে একটি ভালো লাইটিং সেটআপ করে নিতে হবে।

এছাড়াও যে সমস্ত মোবাইলের ক্যামেরার কোয়ালিটি মোটামুটি ভালো কিংবা পুরোপুরি ভালো সে সমস্ত ক্যামেরার ক্ষেত্রেও লাইটিং সেটআপ করলে ছবির কোয়ালিটি পূর্বের তুলনায় আরো বেশি বৃদ্ধি পাবে।

সে ক্ষেত্রে লাইটিং সেটআপের যে বিষয়টি রয়েছে সেটির দিকে মনোনিবেশ করতে পারেন এবং আপনি যে লাইটিং সেটআপ করবেন সেটি অবশ্যই মুখের দিকে করে রাখবেন। অর্থাৎ, লাইটিং যাতে মুখের দিকে পড়ে এবং মুখ যাতে পূর্বের তুলনায় আরো বেশি পরিষ্কার বা ব্রাইট হয়।

বসা এবং ফটোগ্রাফার নির্বাচন করা: ছবি তোলার ক্ষেত্রে আপনি চাইলে চেয়ারে বসে ছবি তুলতে পারেন। এক্ষেত্রে বসে ছবি তুললে ছবির কোয়ালিটি ভালো থাকে এবং এটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি হিসেবে ভালো হয়।

এছাড়াও আপনাকে একজন ভালো ফটোগ্রাফার নির্বাচন করতে হবে, যে ব্যক্তি ভালো ভাবে ছবি তুলতে সক্ষম। তবে, প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার না হলেও কোন সমস্যা নেই।

ছবি তোলা এবং নির্বাচন: যখনই আপনি উপরে উল্লেখিত প্রত্যেকটি বিষয় সম্পর্কে নিশ্চিত অবস্থানে যেতে পারবেন তাহলে একদম পরিশেষে আপনাকে আপনার ফটোগ্রাফার দিয়ে ছবি উঠানোর কাজ সম্পন্ন করে নিতে হবে।

যদি প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার হয়ে থাকেন তাহলে হয়তো দুই একটা ছবি উঠালেই আপনার যে কাঙ্ক্ষিত ছবি রয়েছে সেটি আপনি পেয়ে যেতে পারেন। তবে প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার না হলে এক্ষেত্রে অনেকগুলো ছবি তোলার প্রয়োজন হতে পারে এবং তারপরে সেখান থেকে একটি ছবি নির্বাচন করতে হতে পারে।

পাসপোর্ট ছবি তোলার নিয়ম হিসেবে আপনি যদি উপরে উল্লেখিত প্রত্যেকটি নিয়ম মেনে চলেন এবং এই সমস্ত নিয়মে ছবি তোলার কাজ সম্পন্ন করতে পারেন, তাহলে আপনার ছবি আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে এবং এটি পাসপোর্টে ব্যবহার করার জন্য পুরোপুরিভাবে উপযোগী হবে।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

twenty + sixteen =

Scroll to Top